ক্রিকেট ক্যারিয়ার : সুপার লিগ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে

1789

ক্রিকেটভক্তদের জন্য এবার অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে এল নতুন গেইম ক্রিকেট ক্যারিয়ার: সুপার লিগ (এসএল)। গেম ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান পেচাস গেম স্টুডিওর বানানো এই গেমটি বাজারজাত করছে জাপাক। রোববার বিকালে রাজধানীর একটি হোটেলে গেইমটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন পেচাস গেম স্টুডিওর মাইয়াজ এম রহমান। অনুষ্ঠানে এসেছিলেন গেইমটির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর মারিয়া নূর ও ডেভেলপার মুন্সী সাঈদ হাসনাত।
সাঈদ হাসনাত বলেন, এসএল বিশ্বের এমন একটি ক্রিকেট গেম যেখানে প্লেয়াররা পাবে অন ফিল্ড প্লেয়ার হিসেবে সুপার পাওয়ার। তিনি জানান, এসএল শুধু ক্লাব ম্যানেজমেন্ট এবং ক্রিকেট ম্যাচ খেলার জন্য একটি হাইব্রিড গেইম তৈরির পাশাপাশি ভিন্নধর্মী গেম সুপার শটস ও সুপার বলস এনেছে। যখন খেলোয়াড়রা ক্রমাগতভাবে ব্যাট বা বল করে, একটি সুপার মিটার চার্জ আপ হয়। এটি একবার চার্জ হয়ে গেলে একটি সুপার পাওয়ারের শট বা বল ব্যবহার করার সুযোগ থাকবে, যার অনেকটাই হলিউডি অ্যাকশনের মতো বলে দাবি করছেন মুন্সী। এই গেইমে একটি শক্তিশালী দল তৈরির জন্য ক্লাবের ম্যানেজার হিসেবে প্লেয়ারকে খেলোয়াড় কিনতে ও বিক্রি করতে হবে। একইসঙ্গে ক্লাবের অর্থ পরিচালনা করতে হবে, খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষণ দিতে হবে। মাঠের মধ্যে খেলোয়াড়রা ম্যাচটি অটো সিম্যুলেট করতে পারবে। কিংবা নিজেরাও দলের যে কোনো খেলোয়াড়কে বেছে নিয়ে ম্যাচ খেলতে পারবে। গেমটি খেলতে মিনিমাম যা প্রয়োজন, অ্যান্ড্রয়েড ৪.১ জেলি বিন, ১.৫ জিএইচ ডুয়াল কোর বা ১.২ জিএইচ কোয়াড কোর সিপিইউ এবং ২ জিবি র‌্যাম। গেমটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে।
মাইয়াজ এম রহমান বলেন, অ্যান্ড্রয়েডে অন্যান্য ক্রিকেট গেম থেকে একেবারে আলাদা এই এসএল। গেইমটিকে আরও আধুনিক করতে আমরা এর প্রযুক্তির দিকটি নিয়ে আরও ভাবব। উপমহাদেশের মোবাইল গেম অ্যারাইনার মধ্যে অন্যতম নামি পাবলিশার জাপাকের সঙ্গে অংশীদারিত্ব করতে পেরে আনন্দিত। পেচাস গেম স্টুডিও এর আগে গ্রিন পাজল, ক্রিকেট ক্যারিয়ার : বিগিনিংস ও ক্রিকেট ক্যারিয়ার : ওয়ার্ল্ড কাপ নামে তিনটি গেম বাজারে আনে।