পুলিশের সাইবার ইউনিটের নজরে, ক্ষমা চাইলেন নোবেল

32

গত কয়েকদিন থেকে ফেসবুকে একের পর এক বিতর্কিত পোস্ট দিচ্ছিলেন মাঈনুল আহসান নোবেল। বিভিন্নজনের সাথে তর্কেও জড়িয়ে পড়েন। তাহসিন এন রাকিব নামের একজন ইউটিবার ও সঙ্গীতশিল্পীর সঙ্গে ক্রমাগত বাক্যযুদ্ধে লিপ্ত হন। যেখানে অশালীন শব্দেরও প্রয়োগ ঘটে।

এসব চোখ এড়ায়নি পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের। সংশ্লিষ্ট বিভাগের এডিসি নাজমুল ইসলাম নিজের ব্যক্তিগত প্রোফাইলে একটি পোস্ট করেন। তিনি ওই পোস্টে লেখেন, ‘নোবেলম্যান! আপনার পেজের অনেক পোস্ট দেখলাম। দেশের মানুষ আপনাকে ভালোবাসে, আপনার কাছ থেকে অনেকেই অনেকভাবে শেখে। আমি একজন সাইবার কপ হিসেবে আশা করি যে, আপনি আপনার পোস্টের মাধ্যমে সাইবার নীতি মেনে এ দেশের একজন সম্মানিত ব্যক্তি ও গুণীজন হিসেবে সাইবার রিজিলিয়েন্ট সমাজ বিনির্মাণে প্রত্যক্ষ ভূমিকা রাখবেন। আপনি ভাল থাকুন!’

নোবেল ভুল বুঝতে পেরে ক্ষমা চেয়ে একটি পোস্ট করেন। ওই পোস্টে নোবেল লেখেন, ‘আমি অত্যান্ত দুঃখিত নাজমুল স্যার। আমি কাউকে আপত্তি করে পোস্ট করেনি। মূলত আমার নতুন গান ‘তামাশা’ মুক্তি উপলক্ষে দর্শকের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য এই পোস্ট দিয়েছি। তবে আমি দুঃখিত। আমি ক্ষমা প্রার্থনা করছি।’

গত ১০ বছরে বাংলাদেশের মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে কোনো সৃষ্টিশীল গান হয়নি দাবি করে নিজের দুটি গানের কথা পোস্ট করেন নোবেল নিজের ফেসবুক পেইজে। যেখানে তিনি ভারতের জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্তদের সঙ্গে মাত্র দুই বছরে দুটি গান করে ফেললেন, অথচ ১০ বছরে বাংলাদেশের সঙ্গীতভূবনে কোনো গানই সৃষ্টি হয়নি দাবি করেন- গত ১৯ মে এই পোস্ট করার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় ওঠে।