জেলা প্রশাসনের গণশুনানি : ঘর পাচ্ছেন আরো ১৪ দুস্থ মানুষ

18

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসনের সাপ্তাহিক কর্মসূচি হিসেবে প্রতি বুধবার গণশুনানি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেবাসমূহ আরো জনমুখী করতে জনগণের সমস্যা সম্ভাবনা নিয়ে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে সরাসরি জনগণের অভাব অভিযোগ তুল ধরার সুযোগ হচ্ছে। সপ্তাহের অন্যান্য দিনের সাক্ষাৎ ছাড়াও প্রতি বুধবার দিনব্যাপী জেলা প্রশাসক এসব জনগণের অভাব, অভিযোগ, আবেদন, নিবেদন শুনছেন এবং তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তিযোগ্য বিষয়সমূহ নিষ্পত্তি করে জনগণকে সেবা প্রদান করছেন। সভার সিদ্ধান্তসমূহ লিখিতভাবে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাছেও প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের জন্য পাঠানো হচ্ছে।
বুধবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ৩ শতাধিক মানুষ তাদের অভাব অভিযোগ নিয়ে হাজির হন গণশুনানিতে। তাদের সবার কথা শুনেন জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক।
তাদের মধ্যে ৯ জনকে ৩৯ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। অন্যদিকে ঘরের জন্য আবেদন করেন ১৪ জন এবং ১৪ জনকেই ঘর প্রদানের সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া চিকিৎসার জন্য ৩৫টি এবং টিনের জন্য ৩২টি আবেদনের মধ্যে ৩২টি আবেদনই গ্রহণ করা হয়। ১২ জন মহিলাকে সেলাই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাসহ ১২টি সেলাই মেশিন প্রদানের ঘোষণা দেয়া হয়। ৭ জনকে বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আর্থিক সাহায্যের ৩২টি যাচাই বাছাই করে ২টি গ্রহণ করা হয়।
নাগরিক সেবার মান ও গতি বৃদ্ধির লক্ষে ব্যাপক জনসাধারণের উপস্থিতিতে সরাসরি এ শুনানি কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এ.কে.এম. তাজকির-উজ-জামান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তসিকুল ইসলাম তসি, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আলমগীর হোসেন, জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক উম্মে কুলসুম, জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক আবুল কালাম।