হেপাটাইটিসে মৃত্যুর হার বেশি এইচআইভি’র তুলনায়

352

বিশ্বে ২০১৫ সালে হেপাটাইটিসে ১০ লাখ ৩৪ হাজার মানুষ মারা গেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, ২০০০ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত এইচআইভি ও টিবি’র তুলনায় হেপাটাইটিসে মৃত্যুর হার প্রায় ২২ শতাংশ বেশি।২১ এপ্রিল শুক্রবার জাতিসংঘের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। জাতিসংঘ বলছে, বিশ্বে বর্তমানে আনুমানিক ৩২৫ মিলিয়ন মানুষ হেপাটাইটিস বি অথবা সি রোগে ভুগছে। এদের মধ্যে কেউ কেউ মৃত্যুর ঝুঁকিতে রয়েছে। আর হেপাটাইটিসে মৃত্যুর হার দিন দিন বেড়েই চলেছে।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে বিশ্বে হেপাটাইটিস পরিস্থিতিকে জনস্বাস্থ্যের প্রতি গুরুতর হুমকি হিসেবে উল্লেখ করে এ ব্যাপারে ‘জরুরি’ ভিত্তিতে সাড়া দেয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।
হেপাটইটিস রোগের ক্ষেত্রে প্রায়ই লক্ষণগুলো প্রকাশ পায় না। কিন্তু ‘বি’ ও ‘সি’ টাইপ হেপাটাইটিস থেকে যথাক্রমে লিভার সিরোসিস এবং ক্যান্সার হতে পারে।এ ছাড়াও ওইসব রোগে আক্রান্তদের সচেতনতার অভাবে সেগুলো ছড়িয়ে পড়ছে। এর মধ্যে হেপাটাইটিস ‘বি’- মূলত শারীরিক প্রক্রিয়ায় রক্ত ও বীর্যের মাধ্যমে ছড়ায়। যদিও মাত্র ৯ শতাংশ ব্যক্তি তাদের অবস্থা সম্পর্কে অবগত।অন্যদিকে, হেপাটাইটিস ‘সি’- প্রাথমিকভাবে রক্তের মাধ্যমে ছড়ায় এবং এতে আক্রান্তদের ২০ শতাংশ তাদের অবস্থা সম্পর্কে অবগত।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, পরীক্ষা-নিরীক্ষার ও চিকিৎসার সুবিধার অভাবের কারণে লাখ লাখ মানুষ ধীরে ধীরে যকৃতের বিভিন্ন রোগ ও ক্যান্সার এবং পরিশেষে মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যায়।হেপাটাইটিস ‘বি’ মূলত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে দেখা যায়। চীন, মালয়েশিয়া এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এর অন্তর্ভুক্ত। অনুমান করা হয়, এ অঞ্চলের ১১৫ মিলিয়ন মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত।এর পরেই আফ্রিকার অবস্থান। আফ্রিকার ৬০ মিলিয়ন মানুষ হেপাটাইটিস ‘বি’ ভাইরাসে আক্রান্ত। তবে আশার কথা, বর্তমানে হেপাটাইটিস ‘বি’-এর কার্যকর ভ্যাকসিন রয়েছে।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সর্বশেষ তথ্য-উপাত্তে বলা হয়েছে, হেপাটাইটিস ‘সি’ সাধারণত অনিরাপদ ইনজেকশন ব্যবহারের জন্য হয়ে থাকে এবং মাদকসেবীদের মধ্যে এই রোগ বেশি দেখা যায়। এখন পর্যন্ত এই রোগের কোন ভ্যাকসিন নাই।