স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সঙ্গে সুইডেন দূতাবাসের স্বাস্থ্য উপদেষ্টার মতবিনিময়

44

‘স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে চাই সমতা, জবাবদিহিতা ও অংশগ্রহণ’Ñ এই প্রতিপাদ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জে স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন সুইডেন দূতাবাসের ডেভেলপমেন্ট কো-অপারেশন সেকশনের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ডা. জহিরুল ইসলাম। বুধবার বিকেলে জেলাশহরে প্রয়াসের নকীব হোসেন মিলনায়তনে এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ও নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম।
জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সভাপতি প্রফেসর সুলতানা রাজিয়ার সভাপতিত্বে জেলা ও উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম এবং যুব ফোরামের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভার শুরুতে জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের কার্যক্রম সম্পর্কে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন তুলে ধরেন স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের চাঁপাইনবাবগঞ্জের ফোকাল পার্সন ও প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ফারুক আহমেদ। এ সময় তিনি বলেন, এর আগে ফোরামের অনুষ্ঠিত পরিকল্পনা সভায় দলীয় উপস্থাপনায় জেলার স্বাস্থ্য খাত নিয়ে ১৮টি পর্যবেক্ষণ উঠে আসে। এর মধ্যে আমরা ৬টি পর্যবেক্ষণকে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করছি। ফারুক আহমেদ আরো বলেন, জেলার স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে তৃণমূল পর্যায়ে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিশেষ করে মাতৃমৃত্যু রোধে গর্ভবতী মায়েদের সচেতন করে তুলতে ফোরামের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ সময় তিনি এই প্রচার কার্যক্রমে সহযোগিতার জন্য জন্য সুইডেন দূতাবাসের স্বাস্থ্য উপদেষ্টার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
প্রয়াসের কর্মসূচি ব্যবস্থাপক (কর্মশালা) আব্দুস সালামের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেনÑ জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সহসভাপতি গৌরী চন্দ সিতু ও বাবর আলী, তথ্যায়ন ও গবেষণা সম্পাদক সাজিদ তৌহিদ, প্রচার ও গণমাধ্যম বিষয়ক সম্পাদক মনোয়ার হোসেন জুয়েল, সদস্য মাহবুবুল আলম, অ্যাডভোকেট শামসুল হক সুঠু, বিলকিস আরা মহুয়া ও আবদুর রহিম এবং জেলা স্বাস্থ্য অধিকার যুব ফোরামের সমন্বয়কারী রাফিউল ইসলাম, পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক সাহিনা আক্তার হ্যাপিসহ অন্যরা।
সভায় উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সদস্যরা চাঁপাইনবাবগঞ্জের স্বাস্থ্য খাতের বিভিন্ন সমস্যা ও সেখান থেকে উত্তরণের উপায়গুলো তুলে ধরেন।
সভায় সুইডেন দূতাবাসের ডেভেলপমেন্ট কো-অপারেশন সেকশনের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ডা. জহিরুল ইসলাম বলেন, “আমি বলব, অল্প সময়ে আপনারা অনেক কাজ করেছেন এবং আরো কাজ করার সম্ভাবনা তৈরি করেছেন। সামনের দিনগুলোতে আপনাদের কাজের সাথে আমরা থাকব। সেই সাথে কোনো না কোনোভাবে আপনাদের কাছ থেকে যা জেনে গেলাম, শিখে গেলাম; সেটা সরকারের নীতিনির্ধারণী মহলে পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করব। এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় প্রকল্পের মাধ্যমে আমাদের যে কাজগুলো হয়, তার সাথে সংযোগ তৈরি করা যায় কিনা সেটার জন্য চেষ্টা করব।
জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সভাপতি প্রফেসর সুলতানা রাজিয়া বলেন, আমরা যারা এই স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সদস্য হয়ে আছি আমাদের কাজ হলো জনগণের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়ানো এবং এই বোধটা তৈরি করে দেয়া যে, স্বাস্থ্যসেবা পাওয়াটা আমার অধিকার। দেশের একজন নাগরিক হিসেবে স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে থাকলে স্বাস্থ্যসেবা দিতে হবে সরকারকেÑ এই সচেতনতাটা জনগণের মধ্যে তৈরি করতে পারলে আমি মনে করব জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের যে দায়িত্ব তা সফল হয়েছে।
এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় ডা. জহিরুল ইসলাম প্রয়াস কার্যালয়ে এসে পৌঁছান। এ সময় তার সাথে ছিলেন আন্তর্জাতিক মিডওয়াইফারি বিশেষজ্ঞ রন্ডি অ্যান্ডারসন। পরে তারা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের প্রতিনিধি ডা. তৌফিক, আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. নুরুন নাহার নাসুসহ অন্যদের সাথে মতবিনিময় করেন। সেখান থেকে তারা নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শনে যান। সেখানে আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. সাকিল মাহমুদ ও ডা. আসাদুর রহমান বিপ্লব তাদেরকে বিভিন্ন বিষয় অবহিত করেন। এ সময় নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সভাপতি হাফিজুর রহমান এবং তথ্যায়ন ও গবেষণা সম্পাদক মজিদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।
নাচোল থেকে স্বাস্থ্য উপদেষ্টা সিভিল সার্জন ডা. মাহমুদুর রশিদ ও জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উপপরিচালক ডা. আবদুস সালামের সাথে মতবিনিময় করেন।
দিনভর কর্মসূচিতে তাদের সাথে ছিলেনÑ জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সভাপতি প্রফেসর সুলতানা রাজিয়া, প্রয়াসের জ্যেষ্ঠ উপপরিচালক নাসের উদ্দিন, কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ফারুক আহমেদ, সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল ইমাম ও অফিসার শাহরিয়ার শিমুল এবং জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের তথ্যায়ন ও গবেষণা সম্পাদক সাজিদ তৌহিদ।