সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ

43

আমদানির অনুমোদনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় ভারত থেকে শিবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে গেছে। এতে করে জেলার পাইকারি বাজারগুলোতে রকমভেদে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম গড়ে ১০ টাকা করে বেড়ে গেছে। গত ৫ মে সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে সর্বশেষ ২২৭ ট্রাক পেঁয়াজ এসেছে। এরপর আর কোনো পেঁয়াজ ভারত থেকে এ বন্দর দিয়ে আসেনি। বিষয়টি নিশ্চিত করে বন্দর ম্যানেজার কামাল খান জানান, ৫ মে পেঁয়াজ আসার পরদিন থেকেই পেঁয়াজ আসা বন্ধ আছে। এদিকে ঈদের আগে বন্দরে পেঁয়াজ ১৪-১৮ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা বেড়ে ২৬-২৮ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে বলে জানা গেছে।

আমদানিকারক আজিজুল ইসলাম জানান, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির জন্য পাওয়া ইমপোর্ট পারমিটের (আইপি) মেয়াদ ছিল চলতি মাসের ৫ মে পর্যন্ত। তাই দেশের অন্যান্য বন্দরের ন্যায় এ বন্দর দিয়েও আমদানি বন্ধ হয়ে গেছে। সরকার নতুন করে আমদানির অনুমোদন না দেয়ায় বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আসছে না। আমরা ইতোমধ্যে পেঁয়াজ আমদানির জন্য অনুমতি চেয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবেদন করেছি। তিনি বলেন, ঈদুল আজহায় পেঁয়াজের চাহিদা মাথায় রেখে দ্রুত আমদানির অনুমতি দিলে বাজার স্থিতিশীল থাকবে বলে জানান এই আমদানিকারক।

আজিজুল ইসলাম আরো জানান, তার আড়তে যে পরিমাণ পেঁয়াজ ছিল তা প্রায় শেষের পথে। আর মাত্র এক ট্রাক পেঁয়াজ বিক্রি করলেই আড়ত ফাঁকা হয়ে যাবে। তিনি রকমভেদে ২৬ থেকে ২৮ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছেন বলেও জানান।