সানিয়াকে আপেল খাইয়ে বিপাকে বরুণ

17

ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জার প্রেমে হাবুডুবু খাননি এমন পুরুষ মানুষ খুঁজে পাওয়া বেশ দুস্কর। তবে এই তালিকায় যে বলিউড অভিনেতা বরুণ ধাওয়ান ছিলেন, তা জানা গেল সম্প্রতি। ‘ভেড়িয়া’ ছবির প্রচারের মাঝে সানিয়ার প্রতি তার ভাল লাগার কথা জানালেন বরুণ নিজেই।

বরুণের কথায়, “তখনও অভিনয় জীবন শুরু করিনি। একটা অ্যাড কোম্পানিতে চাকরি করি। সানিয়ার সঙ্গে একটা বিজ্ঞাপনের শুটিং চলছিল। আমাকে ৩০০ জোড়া জুতো আনতে বলা হয়েছিল। সঙ্গে সানিয়ার জন্য একটা আপেল। আপেলটা এনে আমি সানিয়ার হাতে দিতে গেলেও সানিয়ার মা আমাকে মুখ ঝামটা দেন। আমি খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। পরে অবশ্য সানিয়াই এসে তার মাকে পুরো ব্যাপারটা বলেছিল। সেই মুহূর্তটা আজও ভুলতে পারিনি।”

শুক্রবার সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে বরুণের নতুন ছবি ‘ভেড়িয়া’। তার প্রচারেই মঙ্গলবার কলকাতায় গিয়েছিলেন বরুণ ধাওয়ান ও কৃতী শ্যানন। সঙ্গে ছিলেন বাঙালি অভিনেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ট্রাম-ট্যাক্সিতে চড়ে, ভবানীপুর এডুকেশন সোসাইটি কলেজে গিয়ে ছবির প্রচার করেন তিনজন। তারপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। বলিউড তারকাদের পাশে হাজির ছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ও।

মঙ্গলবারই ‘ভেড়িয়া’ টিমকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ছবি পোস্ট করেছিলেন প্রসেনজিৎ। মঙ্গলবার শেয়ার করলেন নাচের ভিডিও। এমনিতেই ভাল নাচেন বরুণ। প্রসেনজিতের দেখানো নাচের স্টেপ আয়ত্ত করতে তার খুব একটা সময় লাগেনি। নাচের শেষে বরুণকে জড়িয়ে ধরেন প্রসেনজিৎ। ক্যাপশনে তাকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন তিনি।

দীনেশ ভিজানের পরিচালনায় ‘ভেড়িয়া’ ছবিটি পরিচালনা করেছেন অমর কৌশিক। এই জুটিই এর আগে রাজকুমার রাও অভিনীত ‘স্ত্রী’ ছবি উপহার দিয়েছিল দর্শকদের। ছবিতে ভাস্করের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন বরুণ। নেকড়ে কামড়ে যে ‘ইচ্ছাধারী ভেড়িয়া’য় রূপান্তরিত হয়ে যায়। অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময়ে মানুষ থেকে নেকড়ে হয়ে ওঠে ভাস্কর। এই অবস্থা থেকে রেহাই পেতে চায় সে। তাতে সাহায্য করে কৃতী শ্যানন, দীপক ডোব্রিয়াল, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, পালিন কাবাক।