মাঙ্কিপক্সের নাম পরিবর্তন করতে চায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

45

মাঙ্কিপক্সের নাম পরিবর্তন করতে চাইছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। দ্রুত ছড়িয়ে পড়া রোগটির জন্য কম অমর্যাদাকর নাম বাছাইয়ের জন্য মঙ্গলবার সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

জাতিসংঘের স্বাস্থ্য সংস্থা কয়েক সপ্তাহ ধরে এই রোগের নাম নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। তবে সংস্থাটি রোগের বিস্তার ঠেকাতে খুব বেশি কিছু করতে পারেনি। বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছেন যে নামটি প্রাণিদের জন্য কলঙ্কজনক হতে পারে। কারণ এই রোগের নামের সঙ্গে বানর প্রজাতির নামের সম্পর্ক রয়েছে। সম্প্রতি ব্রাজিলে রোগের ভয়ে মানুষ বানরের ওপর আক্রমণও চালিয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মুখপাত্র ফাদেলা চাইব জেনেভায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘মানব মাঙ্কিপক্স রোগের নামকরণ করা হয়েছিল বর্তমান রোগের নামকরণে সেরা অনুশীলনের আগে। আমরা সত্যিকারার্থে এমন একটি নাম খুঁজে বের করতে চাই, যা অমর্যাদাকর নয়।’ সংস্থার ওয়েবসাইটে চাইলে যে কেউ নতুন নামের প্রস্তাব দিতে পারবেন বলেও জানান তিনি। মাঙ্কিপ নামকরণের ইতিহাস হচ্ছে, এই ভাইরাসটি মূলত ১৯৫৮ সালে ডেনমার্কে গবেষণার জন্য রাখা বানরের মধ্যে শনাক্ত করা হয়েছিল। তবে এই রোগটি বেশ কয়েকটি প্রাণীর মধ্যে পাওয়া যায় এবং প্রায়শই ইঁদুরের মধ্যে পাওয়া যায়। কঙ্গো প্রজাতন্ত্রে ১৯৭০ সালে মানুষের মধ্যে এই রোগটি প্রথম শনাক্ত হয়।