ভোলাহাটে খননের সময় মিলল কষ্টিপাথরের দুটি মূর্তি

53

ভোলাহাটে মাটি খনন করার সময় কষ্টিপাথরের দুটি মূর্তি উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার বেলা ১১টার দিকে মূর্তি দুটি উপজেলার দলদলী ইউনিয়নের পুরাতন বারইপাড়া গ্রাম থেকে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় উদ্ধার করে টাস্কফোর্স। উদ্ধারকৃত মূতি দুটির দাম পৌনে ২ কোটি টাকা বলে বিজিবি জানিয়েছে।
জানা গেছে, পুরাতন বারইপাড়া গ্রামে মাটি খননের সময় কষ্টিপাথরের মূর্তি দুটি দেখতে পান শ্রমিকরা। শ্রমিক মো. তোজিবুল জানান, সোমবার বারইপাড়া গ্রামের মো. শুকুরের জমিতে মাটি খনন করার সময় মূর্তি দুটি দেখতে পাওয়া যায়। এ সময় খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. বাবু ঘটনাস্থলে গিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হককে জানান।
চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক বলেন, মূর্তি পাওয়ার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক গ্রামপুলিশ দিয়ে উদ্ধার করতে বলি। পরে পুলিশ ও বিজিবি সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মূর্তি দুটি উদ্ধার করে দলদলী ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে নেয়া হয়। এ সময় ভোলাহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে তাবাসসুম সেখানে উপস্থিত হন। তিনি মূর্তি দুটি উপজেলা পরিষদ চত্বরে নিয়ে যান।
এদিকে মূর্তি উদ্ধারের খবর ছড়িয়ে পড়লে কষ্টিপাথরের মূর্তি দুটি দেখতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপজেলা চত্বরে ভিড় জমান।
উদ্ধারকৃত দুটি মূর্তির মধ্যে বড়টির ওজন প্রায় ৮২ কেজি, ছোটটির ৬৭ কেজি ৫২০ গ্রাম। দাম প্রায় পৌনে ২ কোটি টাকা বলে উপস্থিত বিজিবি সদস্যরা জানান।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে তাবাসসুম জানান, মূর্তি দুটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ ট্রেজারিতে পাঠিয়ে দেয়া হবে। সেখান থেকে মূর্তি দুটি পরে প্রতœতত্ত্ব বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
এদিকে যোগাযোগ করা হলে ৫৯ বিজিবির রহনপুর ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আমীর হোসেন মোল্লা বলেনÑ স্থানীয়দের সহযোগিতায় টাস্কফোর্স অত্যন্ত মূল্যবান মূর্তি দুটি উদ্ধার করে। যার মূল্য পৌনে দুই কোটি কাটা। স্থানীয়দের কাছ থেকে এমন সহযোগিতা পেলে সীমান্তে চোরাচালান বন্ধ সহজ হবে বলে জানান তিনি।