ব্রাজিলকে দেখে হয়েছেন ফুটবলার, এখন হারাতে চান তাদেরই

35

দুই দলই বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচ জিতেছে। ব্রাজিল-সুইজারল্যান্ড ম্যাচের জয়ী দল চলে যেতে পারে বিশ্বকাপের শেষ ষোলোতে। এমন সুযোগ নিশ্চয়ই হাতছাড়া করতে চাইবে না কেউ। ব্রাজিলের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে অবশ্য শৈশবের স্মৃতিই খুঁজে নিয়েছেন সুইজারল্যান্ড কোচ মুরাট ইয়াকিন।  ম্যাচের আগের সংবাদ সম্মেলনে এসে জানিয়েছেন, ব্রাজিল তাকে অনুপ্রাণিত করেছে ফুটবলার হতে। তিনি বলেছেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমি এই লড়াইয়ের জন্য মুখিয়ে আছি গ্রুপের ড্র হওয়ার পর থেকেই। ছোটবেলায় আমি ব্রাজিলকে নিয়ে দীর্ঘক্ষণ কথা বলতাম। হয়তো এ কারণেই ফুটবলার হয়েছি। ’

বড় দলগুলোর বিপক্ষে খেলা তাদের জন্য বড় সুযোগ বলেও মনে করেন সুইস কোচ, ‘অবশ্যই আমরা ম্যাচটার দিকে তাকিয়ে আছি। এটা দারুণ ব্যাপার বড় নামের সঙ্গে খেলা এবং নিজেদের সামর্থ্যের জানান দেওয়া। ’

ব্রাজিলের জন্য এই ম্যাচে সবচেয়ে বড় ধাক্কা নেইমার জুনিয়রের না থাকা। সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে পায়ে চোট পান তিনি। ছিটকে গেছেন গ্রুপ পর্বের বাকি দুই ম্যাচ থেকে। নেইমারের না থাকা নিয়ে সুইজারল্যান্ড কোচ বলেন, ‘এই ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার জন্য তাদের যথেষ্ট কোয়ালেটি আছে। ’

‘ব্রাজিলের প্রতিটি ফুটবলার অসাধারণ স্কিলফুল। এমনকি সেন্টার ব্যাক ও গোলরক্ষকও। তারা এখানে বিশ্বকাপ জিততে এসেছে। এটা তাদের জন্য প্রায় অবশ্যই করতে হবে এমন কিছু। ’