বৃহস্পতিবার থেকে তাপমাত্রা আরও বাড়বে

30

সপ্তাহকাল ধরে চলমান তাপপ্রবাহের দাপট কমছেই না। উলটো দিনে দিনে আরও ভয়ংকর হয়ে উঠছে। সারা দেশে জারি আছে হিট অ্যালার্ট। হিট স্ট্রোকে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে গাজীপুর, নরসিংদী, রংপুর, সিলেট, মেহেরপুর ও ঝালকাঠিতে এক জন করে, চট্টগ্রামের পটিয়ায় তিন জন এবং দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দুই জন মারা গেছেন। আবহাওয়া বিশ্লেষকরা পূর্বাভাস দিচ্ছেন, আগামী বৃহস্পতিবার থেকে তাপমাত্রা শত বছরের রেকর্ড ভাঙতে পারে। যশোর, চুয়াডাঙ্গা, ঈশ্বরদী অঞ্চলে ৪৪ ডিগ্রিতে পৌঁছতে পারে তাপমাত্রা। আবহাওয়া অফিসের তথ্য অনুযায়ী, চুয়াডাঙ্গা, যশোর এবং পাবনার ওপর দিয়ে অতি তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এছাড়া খুলনা বিভাগের বাকি অংশ, রাজশাহী জেলা এবং ঢাকা বিভাগের ওপর দিয়ে তীব্র দাবদাহ চলছে। একই সঙ্গে দেশের বাকি অংশের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। গতকাল ৬ জেলায় তাপমাত্রা ছিল ৪০ ডিগ্রির ওপরে। রাজশাহীতে ৪১.৫, ঈশ্বরদীতে ৪২, টাঙ্গাইলে ৪০.৪, যশোরে ৪০.২, কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৪০.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড হয়েছে। রাজধানী ঢাকার তাপমাত্রা ৩৮.২ থাকলেও ৪২ ডিগ্রি অনুভূত হয়েছে। আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক বলেন, ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা বিভাগের বেশ কিছু জেলার ওপর দিয়ে তীব্র থেকে অতি তীব্র তাপপ্রবাহ বিদ্যমান রয়েছে। সামনের দিনগুলোতে তাপমাত্রা এমনই থাকবে। ২৭ ও ২৮ তারিখের দিকে গিয়ে এই পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে।