দুনিয়া মাতাতে আসছে ভারতীয় নারী দল ‘উইশ’

43

পপ সংগীত প্রেমীদের কাছে জে-পপ (জাপানি) ও কে-পপের (কোরিয়ান) আকর্ষণ বরাবরই তুঙ্গে। এবার এই অঙ্গনের নতুন সংযোজন আই-পপ। এর মাধ্যমে ভারতীয় চার গায়িকা তাদের দল ডাব্লিউ.আই.এস.এইচ (উইশ) এর মাধ্যমে দুনিয়া মাতাতে চান।

জানা গেছে, এ দলের চার সদস্য হলেন: রিয়া দুজ্ঞাল (রি), সিমরান দুজ্ঞাল (সিম), জো সিদ্বার্থ (জো) এবং সূচিতা শিরকে (সূচি)। তাদেরকে বিগত ২০ বছরের মধ্যে ভারতীয় মূলধারার প্রথম নারী গানের দল বলা হচ্ছে। ভারতের অনেক বিখ্যাত নারী সংগীতশিল্পী থাকলেও নারীদের গানের দল সেভাবে কখনো বিখ্যাত হতে পারেনি।

জো সিদ্বার্থ বিবিসি এশিয়ান নেটওয়ার্ককে জানিয়েছেন, তাদের গানের দল এটি পরিবর্তন করতে চায়। একইসঙ্গে বন্ধুত্ব ও নারী ক্ষমতায়ণের মত ইতিবাচক বার্তা ছড়িয়ে দেওয়ার মাধ্যমে তারা গানের দুনিয়ায় শীর্ষ স্থানে পৌঁছাতে চান।

তাদের মুক্তি পাওয়া প্রথম গান ‘লাজিজ’ (উর্দুতে যার অর্থ সুস্বাদু) এমন একটি গান যেটি আধুনিক নারীদের জীবনকে উদযাপন করার পাশাপাশি নিজেকে ভালোবাসার প্রতি গুরুত্ব দেয়।

জো সিদ্বার্থ বলেন, এটি আমার জন্য এবং আমাদের জন্য বিশেষ কিছু। আমরা নিজেদেরকে শুধু শিল্পী হিসেবেই নয়, মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। আমরা একসঙ্গে এটি করছি এবং আমি এটির জন্য অনেক কৃতজ্ঞ।

জো মনে করেন, উইশের মাধ্যমে আই-পপ আন্তর্জাতিক মহলে অনেক পরিচিতি পাবে। তারা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ করতে চান এবং সবখানেই নিজেদের গান শোনাতে চান।

সনি মিউজিক এন্টারটেইনমেন্টের তত্ত্বাবধানে উইশ দলটি তৈরি করেছেন সংগীত প্রযোজক মাইকি ম্যাকক্লিয়ারি। দলটির প্রথম সদস্য রিয়া দুজ্ঞাল (রি) দর্শকদের থেকে ইতিবাচক সাড়া পেয়ে উল্লসিত হয়েছেন। যদিও তারা দু দশকের মধ্যে ভারতের প্রথম নারী ব্যান্ড দল, জো স্বীকার করেছেন তাতে কিছুটা চাপও থাকছে। তিনি বলেন, আমাদের নতুন মানদণ্ড তৈরি করতে হবে যেহেতু আমাদের প্রতি মানুষের প্রত্যাশা বেশী।

দলটির প্রত্যেক সদস্যের ব্যক্তিত্বের প্রতি সম্মান রেখে উইশ বিখ্যাত পশ্চিমা নারী ব্যান্ড দল ‘স্পাইস গার্লস’ এবং ‘লিটল ম্যাক্স’ থেকে অনুপ্রেরণা নিতে চায়।