ঢাবি-বুয়েটকে টপকে ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাওয়ার্ড পেল শাবিপ্রবি

137

দেশে প্রথমবারের মতো ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি)। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার ও প্রয়োগের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ এবং দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ শাবিপ্রবিকে এই অ্যাওয়ার্ড দেয়া হয়।

বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু কনভেনশন সেন্টারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করেন। শাবিপ্রবির পক্ষে অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শহীদুর রহমান।

শাবিপ্রবির উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়কে পেছনে ফেলে ডিজিটাল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছি আমরা। এটি আমাদের একটি বিশাল অর্জন। আমাদের ক্যাম্পাসকে ডিজিটাল করার ঘোষণা দিয়েছিলাম। সেই লক্ষ পূরণে আমরা কাজ করেছি। যার ফলে আজ আমাদের এই অর্জন।

তিনি আরও বলেন, পরিশ্রম করলে আপনি তার ফল পাবেন। ক্যাম্পাসকে ডিজিটালাইজড করতে আমরা পরিশ্রম করেছি তার ফল হিসেবে আমাদের পুরস্কার দেয়া হয়েছে। আমাদের ক্যাম্পাসের সার্বিক দিক বিবেচনায় এই অ্যাওয়ার্ড দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। সরকারের ডিজিটালাইজেশন কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য ডিজিটাল এটেনডেন্স সিস্টেম চালু রয়েছে।

তৃতীয় ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস ২০১৯: আজ সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তৃতীয় ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস ২০১৯’ উপলক্ষ্যে আয়োজিত সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দেশের মানুষকে আমি বলবো একটা কিছু আসলো (ইন্টারনেটে আপলোড হলো) অমনি সেটা শুনে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করা বা অন্য কিছু করা ঠিক নয়। সঠিক তথ্য যাচাই করে নেওয়া দরকার।’

তিনি বলেন, ‘যাচাই না করে শুধুমাত্র গুজবে কান দেয়া বা শুধুমাত্র নিজের কৌতুহলবশত সেগুলোতে প্রবেশ না করাই ভাল। কোন ধরনের মন্তব্য দেওয়া বা ছড়ানো বা সেটাতে হাত দেওয়াই উচিত নয়। কোন পোষ্ট শেয়ার করতে গেলে আগে তার খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে এটা কতটুকু সত্য বা মিথ্যা। এই অভ্যাস গড়ে তুললে সেটা আমাদের সমাজের জন্য, দেশের জন্য এবং প্রত্যেকের ব্যক্তি জীবনের জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে, ’যোগ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী তথ্য প্রযুক্তি খাতে বিশেষ অবদানের জন্য ১৪ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মাঝে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ-২০১৯’ সম্মাননা প্রদান করেন। তিনি ‘আমার সরকার’ শীর্ষক একটি অ্যাপও অনুষ্ঠানে উদ্বোধন করেন।