চাঁপাইনবাবগঞ্জে নিজ নাবালিকা কন্যাকে ধর্ষণের দায়ে পিতার যাবজ্জীবন

58

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নিজ নাবালিকা কন্যাকে জোরপূর্বক ধর্ষণের দায়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়ের একটি মামলায় পিতা হায়দার আলী ওরফে মোয়াজ্জেমকে যাবজজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড, কুড়ি হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও ছয় মাস সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল। আজ দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক নরেশ চন্দ্র সরকার আসামীর উপস্থিতিতে আদেশ প্রদান করেন। দন্ডিত হায়দার আলী ওরফে মোয়াজ্জেম শিবগঞ্জ উপজেলার তারাপুর ঠুঠাপাড়া গ্রামের মৃত রুস্তম আলীর ছেলে।
মামলার বিবরণ ও এজাহারসূত্রে জানা যায় ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বিশেষ পিপি এনামুল হক বলেন, ২০১৮ সালের ৬’মে সকালে নিজ বাড়িতে স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে মেয়েকে ধর্ষণ করে হায়দার আলী ওরফে মোয়াজ্জেম। এ ঘটনায় মেয়ের নানী পরদিন শিবগঞ্জ থানায় জামাইকে (ধর্ষিতার পিতা) একমাত্র আসামী করে মামলা করেন। ২০২৮ সালের ৩১ মে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (এসআ্ই) ও শিবগঞ্জ থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) রনি কুমার দাস একমাত্র আসামী হায়দার আলী ওরফে মোয়াজ্জেমকে একমাত্র অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ৮ জনের সাক্ষী,প্রমাণ ও শুনানীর পর ট্রাইব্যুনাল আসামী হায়দার আলী ওরফে মোয়াজ্জেমকে দোষী সাব্যস্ত করে দন্ডাদেশ ঘোষণা করেন। আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এড. জহির জামান জনি।