গোমস্তাপুরে অবশেষে আবার চালু লোকাল ট্রেন

133

তিন বছর চার মাস বন্ধ থাকার পর অবশেষে আবার চালু হয়েছে ঈশ্বরদী-রহনপুর-চাঁপাইনবাবগঞ্জ রুটে চলাচলকারী আইআর নামে লোকাল ট্রেনটি। ট্রেনটি চালুর ব্যাপারে দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছিল চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসী।
গত শনিবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় রহনপুর রেলস্টেশনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মুঠোফোনের মাধ্যমে ট্রেনটির উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন এমপি।
২০২০ সালের ২৬ মার্চের পর করোনার প্রার্দুভাবে অন্য ট্রেনের সঙ্গে এই ট্রেনটি বন্ধ করে দেয় রেল কর্তৃপক্ষ। পরে অন্যান্য ট্রেন পুনরায় চালু হলেও এই আইআর ট্রেনটি এতদিন বন্ধ ছিল। অনেকদিন থেকে বন্ধ থাকায় ওই ট্রেনসহ চাঁপাইনবাবগঞ্জ রুটে অন্য ট্রেন চালুর বিষয়ে আন্দোলন করে আসছিল স্থানীয় রাজনীতিবিদ, বিভিন্ন সংগঠন ও এলাকাবাসী।
অবশেষে আরআই ট্রেনটি শনিবার থেকে আবার চালু করা হয়েছে। লোকাল ট্রেনটি আগের নিয়মেই চলাচল করবে।
দীর্ঘদিন পর ট্রেনটি চালু উপলক্ষে গত শনিবার বিকেলে রহনপুর রেলবন্দর বাস্তবায়ন পরিষদের ব্যানারে রহনপুর রেলস্টেশন প্লাটফর্মে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন রহনপুর রেলবন্দর বাস্তবায়ন (রহনপুর-নাচোল-ভোলাহাট) পরিষদের আহ্বায়ক নাজমুল হুদা খান রুবেল।
প্রধান অতিথি ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মু. জিয়াউর রহমান। অন্য অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য দেন- সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস, পশ্চিমাঞ্চল রেলের (রাজশাহী) মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার, চিফ অপারেটিং সুপারিনটেনডেন্ট আহসানউল্লাহ ভূঁইয়া, গোমস্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন রেজা, নাচোল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, ভোলাহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাব্বুল হোসেন, রহনপুর পৌরসভার মেয়র মতিউর রহমান খান, নাচোল পৌরসভার মেয়র আব্দুর রশিদ খান ঝালু, জেলা পরিষদের সদস্য সাবিহা শবনম কেয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইসলাম সোনার্দীসহ সংগঠনের সদস্য, সাংবাদিক ও রহনপুর, নাচোল, ভোলাহাট উপজেলার বিভিন্ন পেশার ব্যক্তিরা।
আলোচনা সভায় বক্তারা রহনপুর রেলস্টেশনটির অবকাঠামো উন্নয়ন করে পূর্ণাঙ্গ রেলবন্দরে রূপান্তরের দাবি জানান।
আলোচনা সভা শেষে ফিতা কেটে ট্রেনটি চালু করেন প্রধান অতিথিসহ অন্য অতিথিরা।
উল্লেখ্য, এই ট্রেনটি প্রতিদিন ভোর ৪টায় ঈশ্বরদী থেকে ছেড়ে রাজশাহী হয়ে রহনপুরে সকাল সাড়ে ৮টায় পৌঁছাবে। রহনপুর স্টেশন থেকে ৮টা ৫০ মিনিটে ছেড়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ স্টেশনে ৯টা ৫০ মিনিটে যাবে। ২০ মিনিট বিরতির পর ১০টা ১০ মিনিটে ছেড়ে রাজশাহীতে বেলা পৌনে ১২টায় পৌঁছাবে। রাজশাহী থেকে দুপুর ১টায় ছেড়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ স্টেশনে যাবে বিকেলে ৩টায়। বিকেলে ৫টা ১৫ মিনিটে চাঁপাইনবাবগঞ্জ স্টেশন থেকে ছেড়ে রহনপুর স্টেশনে আসবে ৬টা ৩৫ মিনিটে। ৫০ মিনিট বিরতি পর সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে রহনপুর স্টেশন থেকে ছেড়ে রাত ১১টা ২০ মিনিটে ঈশ্বরদীতে পৌঁছাবে।