গাজায় যুদ্ধবিরতি শেষ হচ্ছে আজ

58

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যকার চলমান চার দিনের যুদ্ধবিরতি শেষ হচ্ছে আজ। তবে যুদ্ধবিরতি বাড়ানোর জন্য ইসরায়েলকে চাপ দিচ্ছে মিশর, কাতার এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আল জাজিরা অনলাইন জানিয়েছে, নতুন শর্ত মানলে গাজায় যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়াতে রাজি আছে ইসরায়েল। এ লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে একটি প্রস্তাব দিয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু।
প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে নেতানিয়াহু বলেছেন, প্রতি ১০ জন জিম্মির মুক্তির বিনিময়ে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ এক দিন করে বাড়াতে রাজি আছে ইসরায়েল।

ইসরায়েলি আর্মি রেডিও এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সরকার ১০ জন করে জিম্মির মুক্তির বিনিময়ে চার দিনের যুদ্ধবিরতি বাড়ানোর বিষয়ে হামাসের সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছে। হামাস গতকাল বলেছিল, তারা চায় যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানো হোক। এদিকে আরও জিম্মি মুক্তির বিনিময়ে যুদ্ধবিরতি বাড়ানোর যে প্রস্তাব ইসরায়েলে দিয়েছে, এ ব্যাপারে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি গাজা উপত্যকার শাসকগোষ্ঠী হামাস। গত শনিবার কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মাজেদ আল-আনসারি মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে বলেছিলেন, যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে এর মেয়াদ বাড়ানোর সুযোগ দেওয়ার কথা বলা আছে। তাই বাকিদের মুক্তির বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা যেতে পারে। চুক্তি অনুসারে, যুদ্ধবিরতিতে হামাস ৫০ জিম্মি ও ইসরায়েল ১৫০ ফিলিস্তিনিকে মুক্তি দেবে। চার দিনের যুদ্ধবিরতি শুক্রবার থেকে শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত তিন বার বন্দি-বিনিময় হয়েছে। গতকাল রোববার পর্যন্ত ইসরায়েল, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার নাগরিকসহ মোট ৫৮ জন জিম্মিকে মুক্তি দিয়েছে হামাস। অপরদিকে মোট ১১৭ জন ফিলিস্তিনি বন্দিকে মুক্তি দিয়েছে ইসরায়েল। আজ সোমবার হামাস-ইসরায়েলের মধ্যে বন্দি বিনিময় এখনও হয়নি।