করোনার পর এই প্রথম বিদেশি পর্যটকদের উত্তর কোরিয়ায় ভ্রমণ

37

রাশিয়ার প্রায় ১০০ পর্যটক উত্তর কোরিয়া সফরে গেছেন। করোনার সময় উত্তর কোরিয়া সীমান্ত বন্ধ করে। তারপর এই প্রথম কোনো বিদেশি পর্যটক দল উত্তর কোরিয়ায় প্রবেশ করল। খবর অনুসারে, মস্কো ও পিয়ংইয়ং সম্পর্ক জোরদার করছে। উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন গত সেপ্টেম্বরে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে সাক্ষাতের জন্য রাশিয়ার সুদূর প্রাচ্যে এক বিরল সফর করেন।

এএফপির সাংবাদিকদের তোলা ছবিতে দেখা গেছে, রুশ পর্যটকরা পিয়ংইয়ং বিমানবন্দরে প্রবেশ করছেন। অনেকে পাফার জ্যাকেট পরে স্যুটকেস বা স্কিসহ শীতকালীন ক্রীড়া সরঞ্জাম ঠেলে বিমানবন্দর দিয়ে যাওয়ার সময় হাসিমুখে হাত নাড়ছেন এবং নিকটবর্তী বাসের দিকে রওনা হচ্ছেন।
দক্ষিণ কোরিয়া ও ওয়াশিংটন দাবি করেছে, উত্তর কোরিয়া ইউক্রেনে ব্যবহারের জন্য মস্কোর কাছে অস্ত্র পাঠিয়েছে। এটা উভয় দেশের উপর জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞার লঙ্ঘন। নিষিদ্ধ অস্ত্র কর্মসূচির জন্য উত্তর কোরিয়ার ওপর এবং কিয়েভের সাথে যুদ্ধের জন্য রাশিয়ার ওপর পশ্চিমা দেশগুলো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

সফরের আয়োজক ভস্তক ইনতুর ট্যুর এজেন্সির ব্যবস্থাপক নাতালিয়া জিনিনা সিউলভিত্তিক নিউজকে বলেন, সফরকারী দলটি চার দিনের জন্য উত্তর কোরিয়ায় অবস্থান করবে। প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রায় ১০০ জন দর্শনার্থী প্রথমে পিয়ংইয়ংয়ে যাত্রাবিরতি করে এবং পরে দেশটির পূর্ব উপকূলের ওনসান শহরের কাছে মাসিক্রিয়ং স্কি রিসোর্টে যায়। ইউক্রেনে আগ্রাসনের জেরে নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর থেকে রাশিয়ানদের ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ করা কঠিন হয়ে পড়েছে। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ গত বছর পিয়ংইয়ং সফর করে বলেছিলেন, উত্তর কোরিয়াকে পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে সুপারিশ করা যেতে পারে।