আন্তর্জাতিক আদালতে নালিশ দিল বাংলাদেশ ইসরায়েলের বিরুদ্ধে

27

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) প্রসিকিউটর করিম খান জানিয়েছেন, ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় দখলদার ইসরায়েলি বাহিনীর চালানো যুদ্ধাপরাধ তদন্তে জন্য পাঁচ সদস্য দেশের কাছ থেকে একটি যৌথ অনুরোধ পেয়েছে আইসিসি। যেসব দেশ এই আবেদন করেছে তার মধ্যে বাংলাদেশও রয়েছে।

বাংলাদেশ ছাড়া ইসরায়েলের বিরুদ্ধে নালিশ করা অন্য দেশগুলো হলো দক্ষিণ আফ্রিকা, বলিভিয়া, কমোরোস এবং জিবুতি। এসব দেশ আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে, ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধপরাধের অভিযোগ আমলে নিয়ে সেগুলো যেন তদন্ত করা হয়। যদিও ইসরায়েল আইসিসি’র সদস্যরাষ্ট্র নয় তবে প্রসিকিউটর করিমের মতে, গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামাসের হামলা এবং তার জবাবে ইসরায়েলি বাহিনী গাজায় পাল্টা হামলা চালিয়ে আসছে, তা তদন্তের বিচারিক এখতিয়ার আইসিসির প্রসিকিউশন অফিসের রয়েছে। করিম খান জানান যে রোমান সংবিধির ওপর ভিত্তি করে ২০০২ সালে আইসিসি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, সেই সংবিধি অনুযায়ী কোনো সদস্যরাষ্ট্র যদি বাইরের কোনো রাষ্ট্রের হামলার শিকার হয় এবং ওই হামলাকারী রাষ্ট্র যদি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত সনদে স্বাক্ষরকারী দেশ না ও হয়, তা সত্ত্বেও ওই রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে পারবে আইসিসি। প্রাসঙ্গিক ঘটনা’ সম্পর্কে ‘উল্লেখযোগ্য পরিমাণ’ প্রমাণ সংগ্রহ করেছেন বলে জানিয়েছেন।গত বছর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছিল আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত। যদিও রাশিয়া এই আদালতের সদস্য নয়। আইসিসি’র সদস্যরাষ্ট্র গুলোতে যদি পুতিন যান তাহলে তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতের হাতে সোপর্দ করতে হবে তদের।